২৫ এর পর যা সত্যি

বয়স কি পঁচিশ পেরিয়েছে? যদি আপনার বয়স পচিশ পার হয়ে গিয়ে থাকে তাহলে ইতিমধ্যেই আপনি জেনে গিয়েছেন অনেকগুলো সত্য। যেই বিষয়গুলো আগে অর্থহীন মনে হতো অথবা তেমন একটা গুরুত্ব দিতেন না সেগুলোই হয়তো এখন অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ আপনার কাছে। আবার যেগুলোকে জীবনের সবচাইতে জরুরি মনে হত এমন অনেক কিছুই হয়তো আর কোনো মূল্যই রাখে না এখন জীবনে। বয়স পঁচিশ পার হলে জীবনের কিছু সত্য উপলব্ধি করতে পারবেন আপনি। জানতে চান কী সেগুলো? মিলিয়ে দেখুন তো এই ২১টি সত্য আপনার ক্ষেত্রেও মিলে যায় কিনা!

১) আপনি বুঝতে পারবেন শুক্রবার হলো সপ্তাহের শ্রেষ্ঠ দিন। কারণ পুরো সপ্তাহ পরে এই একটিদিনই ছুটি থাকে আপনার।
২) শনিবারটাকে সপ্তাহের সবচাইতে বাজে দিন মনে হবে আপনার। আর যদি আপনার শনিবার ছুটি থাকে তাহলে রবিবারটা আপনার কাছে পুরো সপ্তাহের সবচাইতে বাজে দিন মনে হবে।
৩) আপনি জব সাইট গুলোর মূল্য বুঝতে শিখবেন। একই সঙ্গে জেনে যাবেন LinkedIn কিসের সাইট এবং এর ব্যবহার।
৪) আপনার মনে আফসোস থাকবে কারণ আপনি সবচাইতে পছন্দের মানুষটিকে সময়মতো ভালোবাসার কথা গুলো জানাতে পারেননি।
৫) আপনি নিজের পাসওয়ার্ড ও মেইল ও ফেসবুক একাউন্ট থেকে লগ আউট করার ব্যাপারে আরো সচেতন হয়ে উঠবেন।
৬) আপনার কাছে মনে হবে আপনি ভুল ইউনিভার্সিটি কিংবা ভুল সাবজেক্টে পড়ে নিজের ভবিষ্যৎ নষ্ট করেছেন।
৭) আপনার ফেসবুকের ওয়াল বন্ধুদের বিয়ে ও এনগেজমেন্টের ছবি দিয়ে ভরা থাকবে।
৮) আপনার পরিবার ও আশেপাশের মানুষদের থেকে বিয়ের চাপে অতিষ্ট হয়ে যাবেন আপনি।
৯) আপনি বুঝতে পারবেন যে অর্থ আয় করা আসলেই কষ্ট। আর তাই কষ্টের টাকাগুলো খরচের ব্যাপারে সাবধান হবেন।
১০) আপনি বুঝতে পারবেন যে আপনি যা আয় করেন তার সিংহভাগ চলে যায় বিভিন্ন বিল পরিশোধ করতে গিয়েই।
১১) আপনি ব্যায়াম করতে চাইবেন। কিন্তু খুব বেশি আলসেমির কারণে ব্যায়াম আর করা হবে না আপনার।
১২) প্রায় প্রতিদিনই ভাববেন ডায়েট করা উচিত। কিন্তু ফাস্টফুডের প্রতি লোভ সামলানো কি আর এতো সোজা!
১৩) আপনার ওয়্যারড্রোবে ফরমাল কাপড়ের অভাব বোধ করবেন এবং বেশ কিছু ফরমাল পোশাক কিনবেন।
১৪) লম্বা ছুটি গুলোর কথা খুব বেশি মনে পড়বে আপনার। গ্রীষ্মকালীন ছুটি কিংবা শীতকালীন ছুটিগুলো কিভাবে কাটাতেন সেই স্মৃতিচারণ করবেন বার বার।
১৫) বন্ধুদের সাথে জীবনের জটিলতা নিয়ে আলোচনা শুরু করবেন।
১৬) ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও বন্ধুদের সাথে আগের মত আর ঘন ঘন দেখা করা সম্ভব হয়ে ওঠে না আপনার। কারণ তাঁরা সবাই নিজের জীবন নিয়ে ব্যস্ত।
১৭) এই পর্যায়ে এসে আপনি বুঝতে পারবেন যে ক্যারিয়ার কিংবা টাকার চাইতে সম্পর্কের মূল্য অনেক বেশি।
১৮) আর তাই আপনি আপনার ৫০ জন শুধু বন্ধুর চাইতে ৫ জন বেস্ট ফ্রেন্ডকে বেশি গুরুত্ব দিবেন এবং তাদের জন্য আপনার ভালোবাসা অনেক বেড়ে যাবে।
১৯) কিছু মানুষ আপনার শত্রু হয়ে যাবে। ঘাবড়ানোর কিছু নেই, ভালো কিছু করলে শত্রু হওয়াটাই স্বাভাবিক।
২০) আপনি বুঝতে পারবেন যে আপনি আপনার আসেপাশের সবাইকে খুশি করতে গেলে নিজে খুশি থাকতে পারবেন না এবং কে কি ভাবলো তা নিয়ে এতো ভাবার কিছু নেই।
২১) জীবনের এই পর্যায়ে এসে আপনি বুঝতে পারবেন যে আপনার মা-বাবাই আপনার সবচাইতে কাছের মানুষ এবং তাঁরা যা বলতেন ঠিকই বলতেন। তাদের উপদেশ আরো আগেই শোনা উচিত ছিলো আপনার।

Share

Leave a Reply