Google Doodle celebrates Pohela Boishakh

Over the years, it has become a key element of Pohela Boishakh celebrations. The world’s most popular search engine has created a doodle depicting the Mongol Shobhajatra procession to welcome Pohela Boishakh, the first day of the Bangla New Year.

The doodle, featuring a tiger, has been on Google’s homepage since early Sunday.

Mongol Shobhajatra was inscribed on Unesco’s Representative List of Intangible Cultural Heritage in November 2016.

The procession, introduced in Jessore in 1985—and replicated in Dhaka in 1989—features large colourful masks, carnival floats of birds and animals, and other motifs of Bangladeshi culture.

Over the years, it has become a key element of the Pohela Boishakh celebrations among Bangalis at home and abroad.

Radical Islamist groups and parties have been demanding that the procession be scrapped, dubbing it “anti-Islamic.”

Pohela Boishakh celebrations started during Mughal Emperor Akbar’s reign, when it was customary to clear all dues on the last day of the Bangla month Chaitra as businessmen would open “halkhata” —  new books of accounts for the new year.

A Google Doodle is a special, temporary, alteration of the logo on Google’s homepage that is intended to celebrate: holidays, events, achievements, and people. Google Doodles were introduced in 1998.

Share

Telecom is at a crossroad. The telecom business is starting to fail.

Ericsson and Nokia, the number two and three suppliers, have their debt rated as junk. Verizon is selling, what should have been its future, their cloud business, to IBM. AT&T is loosing wireless subscribers every quarter. Telefonica, the innovation leader, is scaling back its IoT Smart City business. Telecom as an industry is getting to a crossroad. Whatever road they take will decide their future. The closest resemblance is the moment IBM discovered that PCs and servers were a commodity. They decided to become a services and software company. Competitors of them did not. These competitors might not be around for many more years. Communication has been commoditised. Calls and SMSes are dead. Long live WhatsApp and others! Even Twilio, the SMS and call disruptor, is having problems. Continue reading “Telecom is at a crossroad. The telecom business is starting to fail.” »

Share

Mustafizur stars in landmark series win- Bangladesh v India, 2nd ODI, Mirpur

216075Bangladesh 200 for 4 (Shakib 51*, Ashwin 1-32) beat India 200 in 45 overs (Dhawan 53, Mustafizur 6-43) by six wickets (D/L method)

Mustafizur Rahman was the hero in Mirpur again, (off)cutting through India’s batting with a six-wicket haul to add to his five-for on ODI debut, and launching Bangladesh to their first ever bilateral series win against India. Mustafizur’s 6 for 43, the second best figures by a Bangladesh bowler in ODIs, skittled India for 200, before Shakib Al Hasan steered the chase with a busy fifty, his second on the trot.

With this six-wicket win, Bangladesh also cemented their place in the 2017 Champions Trophy. An overjoyed Mashrafe Mortaza, who has been a part of each of Bangladesh’s five victories against India, toasted his team’s “big achievement”.

Why Bangladesh’s target was 200
When the rains came, India were already eight wickets down after 43.5 overs. Because the game was revised to 47 overs per side, India lost out on some batting opportunity, but that loss was minimal as they were already eight down at the time of the interruption. According to the DLS calculations, the batting resources denied to Bangladesh at the start of their innings, compared to what they would have had in a full 50-over innings, was marginally more than the resources India lost out on.

Continue reading “Mustafizur stars in landmark series win- Bangladesh v India, 2nd ODI, Mirpur” »

Share

7 Inspiring Steve Jobs Quotes That Just Might Change Your Life

He came, he saw, he conquered…and he left behind some words to live by:

“I’m convinced that about half of what separates successful entrepreneurs from the non-successful ones is pure perseverance.”

Everyone says they go the extra mile. Almost no one actually does. Most people who do go there think, “Wait…no one else is here…why am I doing this?” And they leave, never to return.

That’s why the extra mile is such a lonely place. Continue reading “7 Inspiring Steve Jobs Quotes That Just Might Change Your Life” »

Share

যুদ্ধ নয়, ‘শেষ’ হচ্ছে ইরাক!

'যুদ্ধ' শব্দটা মনে হয় ইরাকের জন্যই প্রযোজ্য! ২০০৩ সালে ইরাকে ইঙ্গ-মার্কিন হামলার পর সামরিক-বেসামরিক মিলে জীবন গেছে প্রায় ৫ লাখ লোকের। আহত হয়েছে আরো অনেক যার সঠিক হিসাব নেই। প্রায় সাড়ে ৪ হাজার মার্কিন সৈন্য প্রাণ দিয়েছে এই যুদ্ধে। নিহতের তালিকায় আছে ব্রিটিশসহ আরো অনেক সৈন্য। যুক্তরাষ্ট্রের ব্যয় হয়েছে এক ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার। উদ্দেশ্য ছিল ২০০৩ সালে ক্ষমতায় থাকা সাদ্দাম হোসেনকে উত্খাত করে নাগরিকদের ওপর দমন-পীড়ন বন্ধ করে স্থিতিশীল এবং গণতান্ত্রিক ইরাক ফিরিয়ে আনা। কিন্তু সেই আশা যেন সুদূরপরাহত। ২০১১ সালে মার্কিন সৈন্য প্রত্যাহার করা হয়। কিন্তু সেই ইরাকে আবার মার্কিন সৈন্য। লড়াই চলছে সুন্নি-শিয়া-মার্কিন সৈন্যদের মধ্যে। বিদ্রোহীদের দমনে ইরাকে গেছে রুশ বিমানও। আবার সেই যুদ্ধ। বিশ্লেষকদের মতে, ইরাক যুদ্ধ হয়তো শেষ হবে না। কিন্তু ঠিকই শেষ হচ্ছে ইরাক।

আদিকালের শত্রুতা: গত শতাব্দী ধরে পশ্চিমারা সমস্ত মধ্যপ্রাচ্যকে নিয়ন্ত্রণ করতে চেষ্টা করেছে। এজন্য তারা শাসককে বুঝতে চেষ্টা করেছে। কিন্তু ধর্মনিরপেক্ষ পশ্চিমারা কী তাদের সংস্কৃতিকে বুঝতে চেষ্টা করেছে যেখানে ধর্মই সরকার, ধর্মগ্রন্থই আইন এবং অতীতই ভবিষ্যতের নির্ণায়ক। সুন্নি-শিয়া বিরোধ সৃষ্টি হয় ৬৩২ খ্রিস্টাব্দে মুসলমানদের শেষ নবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর মৃত্যুর পর। সুন্নিরা খেলাফত প্রতিষ্ঠা করতে চান হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর আদলে। আর শিয়ারা চান হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর উত্তরাধিকারী এবং জামাতা ও খলিফা হযরত আলী (রা.) এর নীতিতে। শতাব্দী ধরে এই দুই সমপ্রদায় সাংস্কৃতিক, ভৌগোলিক এবং রাজনৈতিক ভিন্ন পরিচয়ে চলছে। বিশ্বে এখন ১ দশমিক ৬ বিলিয়ন মুসলমানদের মধ্যে শতকরা ৯০ ভাগ মুসলমান সুন্নিপন্থি। ৫শ' বছর ধরে অটোমন সাম্রাজ্যের পতনের পর ১৯৭৯ সালে ইসলামি বিপ্লবের মাধ্যমে পশ্চিমাপন্থি শাসক মোহাম্মদ রেজা শাহকে হটানোর পর ইরানে শিয়ারা ক্ষমতায় আসে। তারা মনোযোগ দেয় তেলসমৃদ্ধ অঞ্চলের দিকে। Continue reading “যুদ্ধ নয়, ‘শেষ’ হচ্ছে ইরাক!” »

Share

ইমান মালিকি

ইমান মালেকি ইরানের তেহরান শহরে জন্মগ্রহণ করেন ১৯৭৬ সালে। ছোট থেকেই ছিলো ছবি আঁকার নেশা। ১৫ বছর বয়স থেকে দীক্ষা নেন ইরানের মহান রিয়ালিস্ট পেইন্টার মর্তেজা কাতৌজিয়ানের কাছে। ১৯৯৮ সালে তেহরান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গ্রাফিক ডিজাইনে সম্মান ডিগ্রি লাভ করেন। তারপর বিভিন্ন প্রদর্শনীতে তাঁর আঁকা চিত্র প্রদর্শিত হয়। বিভিন্ন জাতীয় ও আর্ন্তজাতিক পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন বিভিন্ন সময়। আসুন দেখে নিই ইমান মালেকির আঁকা অসাধারণ কিছু চিত্র:

Emigrant: কাগজে কালার পেন্সিলে, আঁকা ২০০৩ সালের Emigrant: কাগজে কালার পেন্সিলে, আঁকা ২০০৩ সালের[/caption] Continue reading “ইমান মালিকি” »

Share